সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ । ৫ আশ্বিন ১৪২৮
Dating App

ফুলবাড়ীতে বিষাক্ত কীটনাশক প্রয়োগে আড়াই বিঘা জমির ফসল নষ্ট

অনলাইন ডেস্ক »

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে রোপণকৃত ইরি বোরো আবাদের আড়াই বিঘা জমির ধানের চারা বিষাক্ত কীটনাশক প্রয়োগ করে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ফুলবাড়ী উপজেলা সদরের পূর্ব-চন্দ্রখানার কৈয়াটারী গ্রামে শুক্রবার গভীর রাতে।

শনিবার ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ নিয়ে ওই এলাকায় ভুক্তভোগী পরিবারের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলা সদরের পূর্ব-চন্দ্রখানার কৈয়াটারী গ্রামের মৃত জমির উদ্দিনের মেয়ে রহিমা বেগম (৪২) গং পৈত্রিক সুত্রে পাওয়া ৭৫ শতক জমি দীর্ঘদিন থেকে তারই জ্ঞাতিগোষ্ঠীর মৃত ইলিম বকশের ছেলে ইসমাইল হোসেন মুন্সিসহ অন্যান্যরা ভোগদখল করে আসছিলেন। পরবর্তীতে মৃত জমির উদ্দিনের মেয়েরা জানতে পেয়ে জমি উদ্ধারের জন্য আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতে দীর্ঘ শুনানি শেষে মোকদ্দমা নং ০৫/২০ মূলে কমিশন নিয়োগের মাধ্যমে কুড়িগ্রাম আদালত গত বছর ১১ নভেম্বরে তাদেরকে ৭৫ শতক জমি সরেজমিনে এসে বুঝিয়ে দেন। সে অনুযায়ী মৃত জমির উদ্দিনের মেয়েরা চলতি ইরি বোরো আবাদের জন্য ওই আড়াই বিঘা জমিতে ধানের চারা রোপন করেন। এরপর শুক্রবার গভীর রাতে কে বা কাহারা বিষাক্ত কীটনাশক প্রয়োগ করে জমির রোপনকৃত ধানের চারা পুড়িয়ে ফেলে।

স্থানীয়রা জানান, এটি অত্যন্ত নিন্দনীয় কাজ করা হয়েছে। যারা এভাবে আবাদের ক্ষতি করেছেন তারা পশুর চেয়ে অধম। তদন্তের মাধ্যমে উপযুক্ত বিচারের দাবি করেন স্থানীয়রা।
মৃত জমির উদ্দিনের মেয়ে রহিমা জানান, যাদের সঙ্গে আমাদের জমিজমা মামলা রয়েছে তারাই আমাদের খেতের ধানের চারা বিষাক্ত কীটনাশক প্রয়োগ করে পুড়িয়ে দিয়েছে। আমরা থানায় অভিযোগ করেছি। উপযুক্ত বিচার চাই।

ইলিম বকশের ছেলে ইসমাইল হোসেন মুন্সি জানান, আদালতে যেহেতু মামলা রয়েছে। সেখানে এ ঘটনায় আমরা কেউই জড়িত হতে পারি না।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ রাজীব কুমার রায় জানান, আমরা অভিযোগ পেয়েছি এবং বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন »

অনলাইন ডেস্ক »

মন্তব্য করুন »