শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১ । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮
Dating App

প্রকাশ্যে ধূমপান তরুণীর, ক্ষোভ ঝাড়ল পাবলিক! (ভিডিও ভাইরাল)

আলোচিত বাংলাদেশ ডেস্ক »

ধূমপান স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। এছাড়া দেশে প্রকাশ্যে ধূমপান নিষিদ্ধ। ধরা পড়লে শাস্তিযোগ্যও বটে। সেই শাস্তি দেয়ার জন্য সুনির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষ আছে। কিন্তু প্রকাশ্য দিবালোকে এক তরুণীকে ধূমপান করতে দেখে যাচ্ছেতাই ভাষায় গালাগাল করে, ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া চরম অসভত্যা মনে করছেন অনেকেই! কেউ কেউ বলছেন, এর মাধ্যমে মেয়েটি যদি কোন অন্যায় করেও থাকেন তার জন্য প্রশাসন দেখবে। পাবলিক কেন প্রকাশ্য দিবালোকে যাচ্ছেতাই ব্যবহার করলো?

গতকাল রবিবার থেকে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে গেছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একজোড়া কপোত-কপোতী কোনো এক উদ্যানে বসে আড্ডা দিচ্ছে আর ধূমপান করছে। তাদের লক্ষ্য করে তেড়ে যায় শার্ট-প্যান্ট পরা এক ব্যক্তি। তার পিছু নেয় আরও কয়েকজন। শুরু থেকেই মোবাইল ক্যামেরায় ভিডিও ধারণ করা হচ্ছিল। দ্রুতই তামাশা দেখতে আরও অনেক মানুষ জড়ো হয়ে যায়।
অতঃপর সেই তরুণ-তরুণীকে উদ্দেশ্য করে জনৈক ব্যক্তির নেতৃত্বে গালিগালাজ শুরু হয়। প্রকাশ্যে ধূমপান করাটা তাদের কাছে সমস্যা নয়, সমস্যা হলো একজন মেয়ে ধূমপান করছে সেটা! এটাই ছিল তাদের প্রশ্ন।

এদিকে, ঘটনার পর পর নেটিজেনরা মন্তব্য করছেন। ধূমপান করা কোনো অবস্থাতেই ঠিক নয়; কিন্তু এভাবে ধূমপানের জন্য কোনো নারী বা পুরুষকে হেয় করার সুযোগ নেই। আর ভিডিও করা আরও মারাত্মক অপরাধ।

এদিকে, এমন ভিডিও দেখে সোশ্যাল সাইট উত্তাল হয়ে উঠেছে। ব্লগার নিঝুম মজুমদার লিখেছেন, ‘যেই মেয়েটা ধূমপান করছিলেন তাকে আমার যথেষ্ঠ সাহসী মনে হয়েছে। এতো এতো ঘিরে ধরা কাপুরুষ দেখেও মেয়েটা সাহস নিয়ে কথা বলেছে দেখে আমার ভালো লেগেছে।…মেয়েটা চলে আসা প্রথাতে একটা সজোরে লাথি মেরেছে দেখে আনন্দে মনটা ভরে গেল। জয়টা মেয়েটার-ই হয়েছে।’

এক পুলিশ কর্মকর্তা লিখেছেন, সিগারেট খাওয়া খারাপ, সিগারেট খেলে ফুসফুস নষ্ট হয় কিন্তু একটা মেয়ে সিগারেট খেলে সরাসরি আমরা ওই মেয়েটা কে খারাপ বলি। আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন দরকার। আমরা এমন কেন???

শেয়ার করুন »

আলোচিত বাংলাদেশ ডেস্ক »

মন্তব্যসমূহ »

  1. যে কাজে অন্যের ক্ষতি হচ্ছে না, সে কাজ যে যার ইচ্ছামত করতে পারে!
    যেমন – ছেলে বা মেয়ে, সিগারেট খাওয়ার ইচ্ছা হলে খাবে বাট এর গন্ধে যদি অন্য কারো অসুবিধা হয়, তবে তার সামনে খাওয়া যাবে না।ছেলে/মেয়ের সিগারেটের পেছনে না লেগে, নিজের/স্বামী-স্ত্রী’র/বাবা-মা’র রোজগার হালাল কিনা সেদিকে মনোযোগ দেয়া উচিৎ।
    সিগারেট খাওয়া, ঘুষ খাওয়ার চেয়ে সমাজের জন্য কম ক্ষতিকর!

    একটা পোলা পাব্লিক প্লেসে সিগারেট খেলে পরিবেশ নষ্ট হয়না কিন্তু মেয়েটা সিগারেট খেয়ে পরিবেশের বারাটা বাজিয়েছে৷ এটা কেমন যুক্তি
    ,,, অন্যের মেয়ে, বউ, গার্লফ্রেন্ড সিগারেট খাবে,, আমার কি,,,
    ধূমপান মানুষের জন্য ক্ষতিকর। মেয়েদের জন্য আলাদা ভাবে না। মেয়েদের কিছু সমাজ সহজে নিতে পারে না

    একটা মেয়েকে সিগারেট খাইতে নিষেধ করতে কয় জন মহাপুরুষ লাগে??
    সমস্যা সিগারেটে খাওয়া নিয়ে, তাহলে ক্যামেরা কেন অলটাইম মেয়েটার বুকের উপর ধরা ছিলো??
    একটা অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে কি আরো দশটা অন্যায় করব??
    এধরনের মহাপুরুষরাই সূবর্নচরে মহিলা কে উলঙ্গ করে শাস্তির ব্যবস্থা করেছে,???

  2. আমাদের দেশে স্বামীর সাথে শোয়া আর বাচ্চা জন্মদান ছাড়া মেয়েদের আর কি ই বা আনন্দের উপলক্ষ আছে। স্টার জলশা আর প্লাস দেখে পারিবারিক কুটনীতিতে ডক্টরেট হওয়ার থেকে বিড়ি খাওয়া একদম খারাপ না,তবে অবশ্যই আমাদের সংস্কৃতিকে সম্মান করে। অনেক কাজ আছে এবং তারা করেও। দেখা যাবে তার স্ট্রেস-এ থাকার পিছনে কোনো পুরুষই জড়িত। এদেশে পুরুষের জন্য আলাদা স্মোকিং জোন যেমন থাকা উচিৎ তেমনই মেয়েদের জন্য ও….

  3. পাবলিক প্লেসে তো এমনেই সিগারেট খাওয়া উচিত না। সেটা ছেলে বা মেয়ের উভয়ের ক্ষেত্রেই। মেয়েটা সুযোগ করে দেওয়াতে এতগুলো লোক তার সাথে খারাপ আচরণ করতে পেরেছে। সমাজে কিছু লোক এমনেই খারাপ। তারা তো এগুলো বলার জন্য ওৎ পেতে বসে থাকে। এই বয়সে শাসন করার কিছু নেই। তার নিজের ভালোমন্দ নিজেকেই বুঝতে হবে। ওই ঘটনাটি আমার কাছে Tit for Tat এর মত ই মনে হয়েছে ।

মন্তব্য করুন »